Durga Puja 2020

শুভ মহালয়া (Suvo Mahalaya)

‘আশ্বিনের শারদপ্রাতে বেজে উঠেছে আলোকমঞ্জীর’ – মহিষাসুরমর্দিনীর এই লাইনটি শুনে মহালয়ার পুণ্য প্রভাতে আমরা বাঙালিরা ঘুম থেকে উঠি। এটি আপামর বাঙালির কাছে এক নস্টালজিয়া। কাশফুল, পেঁজাতুলোর মতো শ্বেতশুভ্র মেঘ, শিউলিফুলের সৌরভ – রূপেগুণে প্রকৃতি অপরিসীম আনন্দে আত্মহারা। বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের স্তোত্র পাঠের মধ্যে দিয়ে পিতৃপক্ষের শেষ আর দেবীপক্ষের সূচনা হয়। 

তুমি আসবে বলে ‘মা’ আমরা সব কিছু ভুলে মেতে উঠি এক অনাবিল আনন্দে ।

Suvo Mahalaya to everyone!! As we wake up to the reverberating hymns and ‘agamani’ songs from Mahishasurmardini – a nostalgia abounds us. Devi Durga descends to the Earth on Mahalaya and marks the beginning of ‘Devipakksha’, which is celebrated by Bengalis across the globe with much fervor and zeal.

 কিন্তু এই বছর একটু অন্যরকম। সারাবিশ্ব ‘করোনা’ নামক এক মারাত্মক ব্যাধিতে আক্রান্ত। তাই অন্য সব বছরের মতো এই বছর আমরা সাধারণ ভাবে পুজোর আয়োজন করতে পারছিনা বা সেই ভাবে আনন্দ, মজা, ঢাকের তালে তালে নাচ, ধুনুচিনাচ, বাচ্ছাদের হৈ হুল্লোড় দেখতে পাবো না। এটা যে আমাদের বাঙালিদের কাছে কতখানি যন্ত্রণার তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তার মধ্যে আমাদের ওরেগনে ভয়াবহ দাবানলে একের  পর এক জমি, ঘরবাড়ি ভস্মিভূত। মানুষ সহ পশুপাখির জীবনহানি। প্রচুর মানুষ আজ গৃহহীন। সম্পত্তির ক্ষয়ক্ষতিতে ওরেগন আজ বিধ্বস্ত। বিভিন্নরকম বিধিনিষেধের আবদ্ধতায় আমরা চাইলেও আজ প্রাণ খুলে মায়ের বন্দনা করতে পারব না। তবুও তো মানুষ আশাবাদী, আজ না হয় কাল, কাল না হয় পরশু — এই কঠিন সময় কে আমরা অতিক্রম করবই। 

But this year is a little different. The whole world is suffering from COVID19 and given the circumstances, we are not able to organize Pujo in a normal way — we will terribly miss dancing to the beat of drums, ‘dhunuchi naach’, children’s hustle and bustle. It goes without saying that it hurts us.

প্রবাসে বা কলকাতায়, এই বছর সবাই অনাড়ম্বর, জাকঁজমকহীন দুর্গাপুজো করবে বা বলা যেতে পারে এই ভাবে পুজো করতে বাধ্য হবে, কারণ সময় বা পরিস্থিতির কাছে আমরা আজ বড় অসহায়। তাই অল্প করে, ছোট করে, অনাঢ়ম্বরহীন ভাবে আমরা দেবীর আরাধনায় ব্রতী হয়েছি। তাই আপনাদের কাছে পোর্টল্যান্ড প্রবাসীর পক্ষ থেকে জানাই শুভ শারদীয়ার প্রীতি ও শুভেচ্ছা। আপনাদের সহযোগিতা একান্ত কাম্য। 

পরিশেষে আমরা মা দুর্গার কাছে নতমস্তকে, করজোড়ে বিনীত অনুরোধ জানাই – দুষ্টদমনি, সৃষ্টিরূপিণী মা তুমি এই পরিস্থিতি থেকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমাদের উদ্ধার কর। আগামী বছর আমরা তোমার পুজো আবার স্বাভাবিক ভাবে করতে চাই; পৃথিবী কে সুস্থ করে দাও, যাতে আমরা সবার সাথে প্রাণ খুলে মিলিত হতে পারি, হাসতে, কথা বলতে পারি। 

 তাই আসুন ছোট করে হোক আর দূর থেকে হোক, আমরা আমাদের দুর্গাপুজো কে সাফল্যমন্ডিত করে তুলি।।

However do not get disheartened — it may not be the pujo we have come to expect but “Durgotsab” will be celebrated. On behalf of Portland Prabashi, we would like to convey our regards for Suvo Shardiya and invite you all to celebrate with us. Details of the event will follow soon.

ধন্যবাদান্তে,

প্রবাসী অফ পোর্টল্যান্ড